ট্রিকরা তে আপনাকে স্বাগতম......আপনি কি আমাদের সাইটের লেখক হতে চান....?তাহলে এখুনি উপরে ডান দিকে Signup বাটনে ক্লিক করে রেজিস্ট্রেশন করুন..............ধন্যবাদ।

_____Notice   Board____

আমাদের ব্লগে Author হওয়ার নিয়ম: 
প্রথমেই Follow by Email এ ইমেইল দিয়ে Submit করুন।তারপর এখানে ক্লিক করে ফরম টি পুরন করে Submit করলে আপনার কাজ শেষ।

আমাদের এডমিন টিম ভেরিফাই করে আপনাকে জানিয়ে দিবে।

বিদ্রঃ প্রথিতি ইউনিক পোষ্ট এর জন্য আপনি পাবেন ৫টাকা

 

Welcome To Trickra

যে কোন মেয়ের সাথে লজ্জা -ভয় দূর করে Confidently সাহস এবং ভদ্রতার সাথে কথা বলার 5 টি বিশেষ tips


আচ্ছা বন্ধুরা এই ফেসবুক ইনস্টাগ্রাম আদার্স সোশ্যাল মিডিয়া আমাদের চ্যাট করার স্কিল তো অনেক ইম্প্রুভ হয়েছে।

কিন্তু তার সাথে সাথে এই যে রিয়েল লাইফে কমিনিউশন স্কেল। অর্থাৎ সামনাসামনি কথা বলার যে কারোর সাথেই সেটির ক্ষমতা কিন্তু ডি ক্রিস হয়েছে।

এ্যাবসল্যুটলী রাইট এন্ড শুধুমাত্র মেয়েরা কেন এমন অনেকের সাথে আমরা কথা বলতে লজ্জা পাই। ভয় পাই যে সে কিনা কিভাবে কিরকম রিঅ্যাক্ট করবে। আর যখনই কথা বলতে যায় আমাদের সেল কনফিডেন্ট কমে আসে আমাদের আত্মবিশ্বাস কমে আসে।

আর শুধু থাকে লজ্জা আর ভয় কিন্তু আর নয় কারণ আজকের এই পোস্টের মাধ্যমে পাঁচটি টিপস। তোমরা জানতে পারবে আমি তোমাদের সাথে শেয়ার করব যেগুলি যখনই কারো সাথে কথা বলবে কনভাসেশন ই সেগুলি যদি সামান্য তোমার মাথায় রাখ অথবা এপ্লাই করে নাও।

তাহলে দেখবে কিছুদিনের মাত্র কিছুদিনের মধ্যেই তোমার কম্বিনেশন স্কিল আরো হাই হয়ে যাবে তোমার আরো কনফিডেন্ট আসবে যে কারো সাথে কথা বলার জন্য।

আর লজ্জা ভয় টোটালি ভ্যানিশ তাহলে বন্ধুরা আর দেরি কেন Without string any for the time let’s get started.

তো বন্ধুরা at first let’s talk about tape number 1.

১. control your insecurities

এ বাবা মেয়েটার সাথে কথা বলবো যদি কথা না বলে যদি সামনে গিয়ে কোন কথা মাথায় না আসে যদি মেয়েটা গালে চড় মেরে দেয়। না না না না না মেয়েটির যদি বয়ফ্রেন্ড থাকে। না বাবা এর থেকে এক দান পাবজি খেলে আসা যাক আমার দ্বারাই হবে না।

বুঝলে তো প্রবলেম টা কোথায় হচ্ছে এই আত্মবিশ্বাসের অভাব আমাদের self down কিন্তু আমাদের প্রথম স্টেপটাই পার করতে বাধা দিচ্ছে। এটা অলওয়েজ খেয়াল রাখবে যে মেয়েদের মধ্যেও কিন্তু সেম insecurities সেম self doubt রয়েছে প্রথমে তারা কিছু শো করবে না।

প্রথম তারা একদম নর্মাল থাকবে কিন্তু কিছুদিন তোমার ফ্রেন্ডশিপ টা এগোবে তারপর তাকে জিজ্ঞেস করবে তখন দেখবেন সেগুলি দিবে হ্যাঁ তোর সাথে কথা বলতে লজ্জা পাচ্ছিলাম। অথবা তোমার সাথে কিভাবে কথা বলব ভয় পাচ্ছিলাম তুমি কিভাবে রিয়্যাক্ট করে দাও এইসব কিন্তু তাদের মধ্যেও চলে।

তো বন্ধুরা no insecurities self doubt ভয় লজ্জা টোটালী ভুলে ফাস্ট স্টেপ তার সাথে কথা বলতে এগিয়ে যাও।

নাও এবার তুমি কথা বলতে মেয়েটির কাছে এগিয়ে গেলে কিন্তু মাথায় আসলো যে কি নিয়ে কথা বলবো। কি কোশ্চেনস তাকে করব এখানে মাই ফ্রেন্ড তোমাকে এপ্লাই করতে হবে স্টেপ নাম্বার টু।

2. Use complement

কম্প্লিমেন্ট অর্থাৎ প্রশংসা দিয়ে কথার শুরু কর মেয়েরা কিন্তু ভীষণ পছন্দ করেন কম্প্লিমেন্ট পাওয়া কোন ছেলের কাছ থেকে আর শুধু মেয়েরা কেন সবাই পছন্দ করে আমিও পছন্দ করি।

কিন্তু বন্ধুরা এই যে যখনই কম্প্লেমেন্ট দিবে প্রশংসা করবে খেয়াল রাখবে সেটা যেন respectable হয় অর্থাৎ সম্মানের যোগ্য হয় সেটি যেন sexual creepy compliment একদমই যেন না হয়।

তাহলে ফাস্ট impression এ তোমাকে সে ফ্রেন্ড লিস্ট থেকে বাইর করে দিবে এটি অলওয়েজ খেয়াল রাখবে।

Hi Girl you are looking sexy, my babes you are looking so hot, you are looking damn sexy.

হাই আমি ইমরান আচ্ছা একটা কথা আমি তোমায় বলতে চাই যে লাল ড্রেসআপ টা তুমি পরেছো দারুন মানাচ্ছে আর সিরিয়াসলি আর যে হেয়ার স্টাইলটা জানিনা কোন পার্লার থেকে করেছ। তবে তোমার লুকস এর সাথে কিন্তু হেয়ার স্টাইলটা perfect লাগছে trust me

যখনই তুমি তার প্রশংসা করবে তোমার সেল্ফ কনফিডেন্ট তোমার আত্মবিশ্বাস দেখবে অটোমেটিক্যালি বুষ্ট হয়ে গেছে। আর সেখানে ভয় লজ্জা টোটালি দূর হয়ে যাবে এই একটাই ষ্টেপ এই কিন্তু।

remember but my friend always give compliment vikey a gentleman. ok so তোমার insecurities গুলো তুমি কন্ট্রোল করে তার সাথে কথা বলতে গেলে তার প্রশংসাও করলে that’s very good.

এবার স্টেপ নাম্বার 3 তোমার মেন্টেন করতে হবে বডি ল্যাঙ্গুয়েজ এই বডি ল্যাঙ্গুয়েজ কিন্তু এমন একটি Nonverbal communication যার মাধ্যমে জাস্ট কিছু সেকেন্ডের মধ্যেই কিন্তু যে কেউ বুঝতে পারবে। তুমি মিথ্যে কথা বলছো কি না তুমি ফ্লাট করছো কিনা তোমার মধ্যে কনফিডেন্ট রয়েছে কিনা তোমার ব্যক্তিত্ব তোমার পার্সোনালিটি কেমন তুমি সত্যি কথা বলছ কি না এই ফিরছি কিন্তু রাষ্ট্র কিছু সেকেন্ডের মধ্যেই কেউ বুঝতে পারবে।

অথবা mehsoos করতে পারবে তোমার বডি ল্যাঙ্গুয়েজ দেখে তাই যখনই কারো সাথে কথা বলবে তিনটি জিনিস তুমি অলওয়েজ খেয়াল রাখবে নাম্বার ওয়ান body postures কিভাবে তুমি তার আছো তোমার মেরুদন্ড stress আছে কিনা সোজা আছে কিনা তোমার বুকটা সামান্য এগিয়ে দিবে একদম stressed দাঁড়াবে হাতের নড়াচড়া কিন্তু একদমই অহেতু করবে না।

নাম্বার টু হচ্ছে আই কন্টাক কিভাবে তার দিকে তুমি তাকাচ্ছ চোখে চোখ রাখা কিন্তু খুবই সুন্দর একটি কমিউনিকেশন এটিকে কখনো উল্টোপাল্টা একদমই করবে না একদমই তার দিকে তাকিয়ে থাকবে না। আবার একদমই নিচের দিকে অথবা অন্য দিকে তাকাবে না।

তার চোখের দিকে তাকাও কিন্তু একটা ফুল্ল ভাবে মাঝে মাঝে তাকাও মাঝে মাঝে অন্য দিকে তাকাও কিন্তু আই কন্ট্রাক্ট কিন্তু অবশ্যই করতে হবে কমিউনিকেশন এ যেটি খুবই ইম্পরট্যান্ট।

এবং লাস্ট হচ্ছে স্মাইল তোমার হাসি নকল হাসি একদমই দেবে না একটা ছোট্ট সুইট স্মাইল কনফিডেন্ট এর সাথে হাসো কিন্তু সেটি যেন অত্যাধিক হা হা হা কার হাসিনা হয় সুইট স্মার্ট হাসি যেন হয়।

কারণ মনে রাখবে মেয়েরা কিন্তু সিরিয়াস পার্সেন্ট একদমই পছন্দ করে না এবং যেখানে বডি ল্যাঙ্গুয়েজ সঠিক রয়েছে। সেখানে লজ্জা ভয় টোটালি দূর হয়ে কনফিডেন্ট কিন্ত stuck পেয়ে যাবে।

তাহলে বন্ধুরা এবার স্টেপ নাম্বার ফোর দেখা যাক.

4. wishes backup questions

অনেক সময় আমাদের কথা বলতে ইচ্ছে করলেও কি বিষয় তার সাথে কথা বলবো কি ট্রপিক এ কথা বললে বোরিং ফিল করবে না অথবা conversation করছি কথা বলা স্টার্ট করছি কিন্তু তার মাঝখানে ভুলে যাই যে কি ট্রপিকে কথা বলে।

conversation টাকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবো তাই এমন কিছু questions আগে থেকেই mentally তুমি রেডি করে রাখ যে যখনই কথা বলা একটু পজ আসবে একটু থেমে যাবে। তখন তোমার যাতে ভাবতে না হয় সেই সব কোশ্চেন্স গুলি নিয়ে conversation কে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারো।

লাইক মেয়েদের অনেক ট্যালেন্ট থাকতে পারে সেই ট্যালেন্টটা নিয়ে তার কাছে আক্স কর তারা হবিস নিয়ে অথবা through তোমরা মেট করেছ.

হতে পারে কোচিং সেন্টার কলেজে বিয়ে বাড়ি স্কুলে অথবা কোন বার্থডে পার্টি নর্মাল পার্টিতে যেখানেই হোক না কেন সেই রিলেটেড কোন কোশ্চেনস করলে এটা অলওয়েজ খেয়াল রাখবে।

যে যেই ট্রাফিক এই কথা বলবে না কেন সেটা যেন তার ও ইন্টারেস্ট থাকে সাপস তোমার ক্রিকেটে খুবই ইন্টারেস্ট তুমি ক্রিকেটের কোন ট্রপিক তুললে কিন্তু মেয়েটা তো একদমই ক্রিকেটে ইন্টারেস্ট নেই। তখন সে কোনো রিয়্যাকশন দিবে না মেয়েটাকে তুমি বোরিং করবে।

তার থেকে এমন একটি ট্রপিক বোঝার চেষ্টা কর যাতে সে ইন্টারেস্ট পাবে তার কোন hobbies অথবা সে কোথাও ঘুরতে গেছে এক্সাইটিং কোথাও। সেইসব ট্রাফিক এ questions করো তাহলে দেখবে আলোচনাকে কিন্তু অনেক দূর তুমি নিয়ে যেতে পারবে।

এবং যখনি তার সাথে কথা বলার টপিক তোমার রেডি থাকবে তুমি জানো যে তার সাথে তুমি কি কি ট্রফিক কে কথা বলতে চাও। তাহলে তোমার কনফিডেন্স আসবে তোমার ভয় করবে না তোমার লজ্জা করবে না তার সাথে কথা বলতে।

now time for last tip tip number 5 I think এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ যে কোন ক্ষেত্রে সেটি হল।

5. honesty

লাইফে কাউকে পেতে গেলে হতে পারে তার বন্ধুত্ব তার ভালোবাসা তোমার কিন্তু অলওয়েজ তার প্রতি honest থাকতে হবে। যা তোমার মনে আসে honestly তার সাথে শেয়ার করে দাও।

তাহলে বন্ধুরা এই সিম্পেল পাঁচটি স্ট্রিপ যখনই কারো সাথে কথা বলবে কনভাসেশন এ কিছুই করতে হবে না। এই সিম্পল পাঁচটি টিপস একটু মাথায় জাস্ট ঘোরাবে দেখবে কয়েকদিনের মধ্যেই এগুলি তুমি এপ্লাই করতে শুরু করেছো।

তুমি realise ও করবে না কনভাসেশন এ তোমার কারো সাথে কথা বার্তায় সেগুলি সো হতে থাকবে আর এর রেজাল্ট তুমি চুটকিতে মানে immediately রেজাল্ট নোটিশ করতে পারবে। তাহলে বন্ধুরা I think all clear ? আজকের জন্য বাস এইটুকু থাক।

পোস্টটি ভাল লাগলে একটি লাইক করতে পারেন পোস্টটি পড়ে কেমন লাগলো জানাতে পারেন নিচের কমেন্ট বক্সে আর শেয়ার করে আপনার বন্ধুকে দেখার সুযোগ করে দিন।


তো দেখা হচ্ছে নতুন কোন পোষ্টে ততক্ষণ পর্যন্ত ভালো থাকবেন ধন্যবাদ।

Share This

0 Response to "যে কোন মেয়ের সাথে লজ্জা -ভয় দূর করে Confidently সাহস এবং ভদ্রতার সাথে কথা বলার 5 টি বিশেষ tips"

Post a Comment